রান সংগ্রহে বাবরকে টপকে গেলেন তামিম

ওয়ান ডে ও টি-২০ ক্রিকেটে অত্যন্ত ধারাবাহিক হলেও বাবর আজমের সাম্প্রতিক টেস্ট পারফর্ম্যান্স আহামরি কিছু নয়। ক্যাপ্টেন হিসেবে যে চারটি টেস্টে মাঠে নেমেছেন বাবর, ব্যাট হাতে তিনি সংগ্রহ করেছেন ১টি মাত্র হাফ-সেঞ্চুরি। দল ভালো খেলায় চাপা পড়ে যায় বাবরের ব্যর্থতা।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল টেস্টে তুলনায় অনেক ধারাবাহিক। সাম্প্রতিক পারফর্ম্যান্সের নিরিখে বাবর আজমের থেকে অনেক এগিয়ে তিনি।

যদিও এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটমহলের আলোচনায় বাবর। তামিম রয়েছেন স্পটলাইটের আড়ালে। বাংলাদেশের দলগত পারফর্ম্যান্স চমকপ্রদ না হওয়ায় কোথাও একটা ঢাকা পড়ে যায় তামিমের কৃতিত্ব।

বাবর ও তামিমের সাম্প্রতিক টেস্ট পারফর্ম্যান্স পাশাপাশি রাখলেই বোঝো যাবে ছবিটা।

বাবরের শেষ ১০টি টেস্ট ইনিংস:- ৫, ৪৭, ১১, অপরাজিত ৬৩, ৭, ৩০, ৭৭, ৮, ০, ২। মোট-২৫০, হাফ-সেঞ্চুরি ২টি।

তামিমের শেষ ১০টি টেস্ট ইনিংস:- ৩৪, ৪১, ৯, ০, ৪৪, ৫০, ৯০, অপরাজিত ৭৪, ৯২, ২৪। মোট- ৪৫৮। হাফ-সেঞ্চুরি ৪টি।

এমনটা নয় যে, শেষ ১০টি করে ইনিংসের নিরিখে তামিম ওয়ান ডে ও আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটেও খুব একটা পিছিয়ে রয়েছেন বাবরের থেকে। পাক তারকা শেষ ১০টি ওয়ান ডে ইনিংসে সংগ্রহ করেছেন সাকুল্যে ৭৩৬ রান।

তামিমের সংগ্রহ সেখানে ৫৬২। টি-২০’র শেষ ১০টি ইনিংসে বাবরের খাতায় রয়েছে ৩৫৪ রান। তামিম সংগ্রহ করেন ২৭৩।

জিম্বাবোয়ের মতো দুর্বল দলের বিরুদ্ধে শেষ ২টি টেস্টে বাবরের সংগ্রহ যেখানে মাত্র ২ রান, সেখানে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শেষ ২টি টেস্টে তামিম করেছেন ৩টি হাফসেঞ্চুরি-সহ ২৮০ রান।

যদিও তার পরেও তামিমের নাম বিবেচিত হয়নি আইসিসির এপ্রিলের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কারের জন্য। উল্লেখ্য, বাবরের টেস্ট ব়্যাঙ্কিং এই মুহূর্তে ৯। তামিম রয়েছেন ২৭ নম্বরে।

About অজয়

Check Also

বিশ্ব ক্রিকেটে আরো ১ বার বাংলাদেশের সম্মান বৃদ্ধি করলেন সাকিব

সাকিব আল হাসান, বাংলাদেশ ক্রিকেটের বর্ণিল এক চরিত্র। মাঠ এবং মাঠের বাইরের সব জায়গাতেই তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *